Saturday, 20 July, 2024

সর্বাধিক পঠিত

আখ রোপণের সময় ও পদ্ধতি


আখ রোপনের সময় ও চাষবাদ

আখ একটি গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক ফসল যা মূলত চিনির উৎস হিসেবে ব্যবহৃত হয়। আখের চাষ বিভিন্ন অঞ্চলে ভিন্ন ভিন্ন সময় এবং পদ্ধতিতে করা হয়। নিচে আখ চাষের প্রক্রিয়াটি বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হলো:

আখের পরিচিতি

চাষের উপযুক্ত সময়

  • রবি মৌসুম: অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর (শীতকাল)
  • খরিফ মৌসুম: ফেব্রুয়ারি থেকে মার্চ (গ্রীষ্মকাল)

মাটি ও জলবায়ু

  • আখ চাষের জন্য গভীর, উর্বর, জলনিকাশযুক্ত দোআঁশ বা বেলে দোআঁশ মাটি উপযুক্ত।
  • মাটির পিএইচ ৬.৫ থেকে ৭.৫ হওয়া উচিত।
  • আখ গরম ও আর্দ্র জলবায়ু পছন্দ করে।

মাটি প্রস্তুতি

এঁটেল, দোআঁশ ও এঁটেল-দোআঁশ মাটিতে আখ ভালো জন্মে। তবে পানি নিকাশের ব্যবস্থাযুক্ত এঁটেল-দোআঁশ মাটি সবচেয়ে ভালো। উঁচু ও মাঝারি উঁচু জমি; যেখানে পানি জমে থাকে না— এমন জমি নির্বাচন করতে হবে।

  • জমি প্রথমে ভালোভাবে চাষ করতে হবে।
  • জমি থেকে আগাছা পরিষ্কার করতে হবে।
  • জমিতে জৈব সার এবং প্রয়োজনীয় রাসায়নিক সার প্রয়োগ করতে হবে।

বীজের প্রস্তুতি

  • স্বাস্থ্যকর ও রোগমুক্ত আখের কাণ্ড বা সেট বেছে নিতে হবে।
  • প্রতিটি সেটে ২-৩ গাঁট থাকা উচিত।

রোপণের পদ্ধতি

সমতলী পদ্ধতি
নালা তৈরি করে নালায় ৫-৬ ইঞ্চি গভীরে রোপণ করা হয়।

ভাওড় পদ্ধতি
সমতলি পদ্ধতির চেয়ে কিছুটা গভীর নালা তৈরি করে ৮-১০ ইঞ্চি গভীরে রোপণ করা হয়।

  1. সারি পদ্ধতি:
    • সারির মধ্যে দূরত্ব রাখতে হবে ৭৫-৯০ সেন্টিমিটার।
    • গর্তের গভীরতা ১০-১৫ সেন্টিমিটার হওয়া উচিত।
    • প্রতিটি সেটের মধ্যে ৩০-৪৫ সেন্টিমিটার দূরত্ব রাখতে হবে।
    • প্রতিটি গর্তে ২-৩টি সেট রেখে মাটি দিয়ে ঢেকে দিতে হবে।
  2. বেড পদ্ধতি:
    • উঁচু বেড তৈরি করতে হবে।
    • বেডের প্রস্থ ১-১.৫ মিটার এবং বেডের মধ্যে খালের প্রস্থ ৩০ সেন্টিমিটার রাখতে হবে।
    • প্রতিটি বেডে আখের কাণ্ড বা সেট সারি করে রোপণ করতে হবে।

সার প্রয়োগ

  • প্রথমে জমিতে বেসাল ডোজ সার দিতে হবে।
  • রোপণের পর নির্দিষ্ট সময়ে পরিমিত সার প্রয়োগ করতে হবে।

সেচ ও পরিচর্যা

  • আখের রোপণের পর প্রথমে হালকা সেচ দিতে হবে।
  • পরবর্তীতে নির্দিষ্ট সময়ে সেচ প্রদান করতে হবে, বিশেষ করে শুষ্ক মৌসুমে।
  • আগাছা নিয়ন্ত্রণ এবং রোগবালাই প্রতিরোধের জন্য নিয়মিত পরিচর্যা করতে হবে।

রোগ ও পোকা দমন

  • আখের সাধারণ রোগবালাই এবং পোকামাকড় নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রয়োজনীয় কীটনাশক এবং ছত্রাকনাশক ব্যবহার করতে হবে।

ফসল সংগ্রহ

  • আখ সাধারণত ১০-১২ মাস পর পরিপক্ক হয়।
  • আখের পাতা হলুদ হয়ে এলে এবং চিনি সংগ্রহের উপযোগী হলে আখ কাটা হয়।

আখ চাষে সঠিক পদ্ধতি ও পরিচর্যা অনুসরণ করলে ভালো ফলন পাওয়া যায়। স্থানীয় কৃষি বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে চাষ করলে সফলতা পাওয়া সহজ হয়।

0 comments on “আখ রোপণের সময় ও পদ্ধতি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *