Saturday, 28 January, 2023

সর্বাধিক পঠিত

মুরগীর এগ ড্রপ সিনড্রোম(EDS’76) কারন ও প্রতিকার


egg drop syndrome poultry

লেয়ার মুরগীর চাষে প্রায়শঃ দেখা যায় ডিমের খোলসের এবং ডিমের আকার ও আকৃতির বিকৃত হয়। অপরিপূর্নতা আসে। মুরগীর এগ ড্রপ সিনড্রোম(EDS’76) কারনে চাষি অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

লেয়ার মুরগির মুরগীর এগ ড্রপ সিনড্রোম(EDS’76) কারন ও প্রতিকার নিয়ে আজকের আলোচন। আলোচনাতে কোন প্রশ্নের সম্মুখীন হলে আমাদের প্রশ্ন করুন

মুরগীর এগ ড্রপ সিনড্রোম(EDS’76) কারন ও প্রতিকারের মুল আলোচনায়-

আরো পড়ুন
বারি’র মহাপরিচালক হিসেবে পুনরায় যোগদান করলেন ড. দেবাশীষ সরকার

রোববার (২২ জানুয়ারি) বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এর মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন স্বনামধন্য কৃষি বিজ্ঞানী এবং বিশিষ্ট কীটতত্ত্ববিদ Read more

আলুর লেইট ব্লাইট বা মড়ক রোগ ও তার প্রতিকার
লেইট ব্লাইট

আলুর লেইট ব্লাইট বা মড়ক রোগ বিশ্বজুড়ে অন্যতম একটি ক্ষতিকারক রোগ। ১৯৯০ সালের পর থেকে বাংলাদেশে আলুর চাষাবাদ বিস্তারের পাশাপাশি Read more

এগ ড্রপ সিনড্রোম কারণঃ

এটি সাধারণত এভিয়ান এডিনোভাইরাস(strain BC14,virus 127), এর মাধ্যমে হয়ে থাকে। এই ভাইরাসটি ১২ টি ফাউল এডিনোভাইরাসের মধ্যে পড়ে নাহ।

কিভাবে ছড়ায়?

এই ভাইরাসটি ডিম এর মাধ্যমে একটি ফ্লক এ ছড়িয়ে থাকে। ডিম পাড়ার ঠিক পূর্ববর্তী সময় ফ্লকে পর্যন্ত আক্রান্ত বার্ড গুলো এই ভাইরাস বহন করে থাকে। এবং ডিম পাড়ার শুরুর সময় ভাইরাস ছড়াতে থাকে। এছাড়া লিটার এর মাধ্যমে ছড়াতে পারে।

এগ ড্রপ সিনড্রোমে যারা আক্রান্ত হয়ে থাকে-

কেবলমাত্র মুরগীর ক্ষেত্রে এই ভাইরাসটি দিয়ে রোগ হয়ে থাকে। যদিও এটি হাঁস এটির বাহক হিসেবে কাজ করে কিন্তু হাঁসের এতে রোগ হয় নাহ।

এগ ড্রপ সিনড্রোমের ক্লিনিকাল সাইনঃ

  • (EDS’76) দ্বারা ডিম পাড়ার শুরুর সময় থেকে লেয়ার এবং ব্রিডার  আক্রান্ত হয়ে থাকে।
  • আক্রান্ত ফ্লকে ডিম উৎপাদনের মাত্রা কমে যায় এবং শেল কোয়ালিটি খারাপ হয়ে থাকে এবং ব্রাউন কালার ডিমের ক্ষেত্রে শেল কালার নস্ট হয়ে যায়। 
  • আক্রান্ত বার্ড এ এনেমিয়া দেখা যায়, ডাইরিয়া হতে পারে।
  • খাবার গ্রহণ কমে যেতে পারে।
  • মরটালিটি রেট বৃদ্ধি অথবা অন্য কোনো সিম্পটম দেখা যায় না।
egg_drop_syndrome_eggs_high
egg_drop_syndrome_eggs_high

এগ ড্রপ সিনড্রোমের ডায়গনসিসঃ

রোগের ক্ষেত্রে সাধারণত ভাইরাস আইসোলেশন এবং এন্টিবডি টেস্ট এর মাধ্যমে সনাক্ত করা হয়ে থাকে। এছাড়া ডিফারেন্সিয়াল ডায়গোনসিস এর মাধ্যমে এটির এন্টিবডির উপস্থিতি নির্ণয় করা হয়ে থাকে।

এগ ড্রপ সিনড্রোমের ট্রিটমেন্টঃ

এই রোগের কোনো ট্রিটমেন্ট নেই।

এগ ড্রপ সিনড্রোমের প্রতিরোধঃ

ডিম পাড়া শুরু হওয়ার পূর্ববর্তি সময়ে ভ্যাক্সিনেশন(inactivated vaccine) করার মাধ্যমে এটি প্রতিরোধ করা যায়।

0 comments on “মুরগীর এগ ড্রপ সিনড্রোম(EDS’76) কারন ও প্রতিকার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!