Saturday, 28 January, 2023

সর্বাধিক পঠিত

অর্গানিক (জৈব) ফসল উৎপাদনে ফেরোমন ফাঁদ


ফেরোমন ফাঁদ সব ধরণের ফসল, সবজি চাষে ক্ষতিকর পোকা, মাছিসহ বিভিন্ন প্রাণি দমনে উৎকৃষ্ট মাধ্যম। অর্গানিক / জৈব পদ্ধতিতে ফসল উৎপাদনে ফেরোমনের ফাদের উপযোগিতা বাড়ছে।

মাছি, পোকা দমনের একটি জৈব পদ্ধতি ফেরোমন ফাঁদ। এখানে একটি ফেরোমন লিউর / টোপ ও একটি বয়াম দরকার হয়। লিউরটি বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। এটি তৈরির কৌশল অনেকেই জানেন না।

ফেরোমন ফাঁদ কী ? 

আরো পড়ুন
রঙ্গিন ফুলকপি চাষে লাভবান কৃষকরা

চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে প্রথমবারের মতো রঙিন ফুলকপি চাষে সফল হয়েছেন কৃষকরা। সীতাকুন্ডের ফৌজদারহাট সাঙ্গু এলাকায় ১২ শতাংশ জমিতে পরীক্ষামূলকভাবে ১ হাজার Read more

বারি’র মহাপরিচালক হিসেবে পুনরায় যোগদান করলেন ড. দেবাশীষ সরকার

রোববার (২২ জানুয়ারি) বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এর মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন স্বনামধন্য কৃষি বিজ্ঞানী এবং বিশিষ্ট কীটতত্ত্ববিদ Read more

১) কৃত্রিম উপায়ে তৈরি স্ত্রী পোকার গন্ধে পুরুষ পোকাকে আকৃষ্ট করে মারার পদ্ধতি।

২) লিউর/কিউলিউর নামক টোপ ব্যবহার করে পুরুষ মাছি পোকা আকৃষ্ট করা সম্ভব।

৩)  সেক্স ফেরোমনের গন্ধে আকৃষ্ট হয়ে পুরুষ মাছি পোকা প্লাস্টিক পাত্রের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে ও সাবান পানিতে পড়ে আটকে পরে মারা যায়।

৪) প্রতি ৩ শতাংশ জমির জন্য ১টি ফাঁদ ব্যবহার করা উচিত। একটি টোপ এক মৌসুমের জন্য প্রযোজ্য। খেয়াল রাখতে হবে, পাত্রের তলায় রক্ষিত সাবান পানি যেন শুকিয়ে না যায়। ফাঁদের পানি শুকিয়ে গেলে পুনরায় সাবান/কাপড় কাচার পাউডার মিশ্রিত পানি দিতে হবে।

ফেরোমন ফাঁদ

৫) বেগুনের ক্ষেত্রে প্রতি দেড় থেকে দুই মাস পরপর এবং কুমড়াজাতীয় সবজি ফলের মাছি পোকার ক্ষেত্রে প্রতি ৩ মাস পর টোপ বা/লিউর পরিবর্তন করে নতুন টোপ/লিউর ফাঁদ পুনঃ স্থাপন করতে হবে।

৬) কম শ্রম ও খরচে পরিবেশবান্ধব এবং স্বাস্থ্যসম্মত বিষমুক্ত সবজি উৎপাদন করা ফেরোমন ফাদে হয়।

৭) বেগুনের ডগা ও ফল ছিদ্রকারী পোকা, কুমড়াজাতীয় সবজির ফলের মাছি পোকা,আম,লিচু, পেয়ারা, ও কমলার মাছি পোকা দমনে সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার করা হয়।

ফেরোমন ফাদ তৈরির পদ্ধতি

১) তিন লিটার পানি ধারণক্ষমতাসম্পন্ন ও ২২ সেমি. লম্বা চার কোণাকৃতি বা গোলাকার একটি প্লাস্টিক পাত্র দিয়ে এই ফাঁদ তৈরি করা হয়।

২) পাত্রটি উভয় পার্শ্বে ১০-১২ সেমি. উচ্চতা সম্পন্ন এবং নিচের দিকে ১০-১২ সেমি. পরিমাণ অংশ ত্রিভুজাকারে কেটে ফেলতে হবে।

৩) পাত্রের তলা হতে কাটা অংশের নিচের দিক কমপক্ষে ৪-৫ সেমি. উঁচু হওয়া বাঞ্ছনীয়। ফাঁদ পাতা অবস্থায় সব সময় পাত্রের তলা হতে উপরের দিকে ৩-৪ সেমি.পর্যন্ত সাবান মিশ্রিত পানি ভরে রাখতে হবে।

৪) প্লাস্টিক পাত্রেরমুখ থেকে সেক্স ফেরোমন টোপটি একটি সরু তার দিয়ে এমনভাবে ঝুলিয়ে রাখতে হবে যেন সেটি পানি থেকে মাত্র ২-৩ সেমি. উপরে থাকে।

৫) প্রতি ১২-১৫ মিটার দূরে দূরে বর্গাকারে ফেরোমন ফাঁদ স্থাপন করতে হবে।

৬) প্রতি ৪-৫ দিন পর পর ফাঁদের সাবান মিশ্রিত পানি পোকাসহ পরিষ্কার ও পরিবর্তন করতে হবে।

৭)  ফেরোমন টোপগওলো অ্যালমুনিয়াম প্যাকেটে ১-২ বছর সংরক্ষণ করা যায়।

৮)  চারা লাগানোর ১০-১৫ দিন থেকে ফেরোমোন ফাঁদ স্থাপন করতে হবে।

৯) ২টি খুঁটির মাঝে ফাঁদটি বসিয়ে শক্ত করে বেঁধে দিতে হবে।

১০) গাছের উচ্চতা বাড়ার সাথে সাথে ফাঁদটিকে উপরের দিকে তুলে দিতে হবে।

ফেরোমন কি ?

পুরুষ পোকাকে আকৃষ্ট করার জন্য স্ত্রী পোকা কর্তৃক এক ধরনের রাসায়নিক পদার্থ নির্গত হয় যা সেক্স ফেরোমন নামে পরিচিত।

ফেরোমন ফাঁদ হচ্ছে একধরনের কীটপতঙ্গের দমন ফাঁদ যাতে ক্ষতিকর পোকামাকড়দের নিয়ন্ত্রণ করতে সেক্স ফেরোমন ব্যবহার করা হয়।

0 comments on “অর্গানিক (জৈব) ফসল উৎপাদনে ফেরোমন ফাঁদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!